ময়মনসিংহ, বুধবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ | ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ () ২১°সে
শিরোনাম :
হালুয়াঘাটে সাংসদ জুয়েল আরেংকে সংবর্ধনা জুয়েল আরেং যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ায় হালুয়াঘাটে আনন্দ মিছিল জুয়েল আরেং যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ায় হালুয়াঘাটে আনন্দ মিছিল হালুয়াঘাটে গড়ে উঠছে অপার সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট হালুয়াঘাটে বহুল প্রতীক্ষিত ভারতীয় কয়লা আমদানি শুরু ময়মনসিংহে চুরি চিনতাই মাদকরোদে বিট পুলিশ সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হালুয়াঘাট সাধারণ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন চুরি চিনতাই ও মাদকরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মহড়া জকিগঞ্জে আল ইসলাহ ও তালামীযের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ ময়মনসিংহে জেলা ও মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কমিটি গঠন

হালুয়াঘাটে ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস পালিত

মুহাঃ মাসুদ রানা, হালুয়াঘাট প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও শোক প্রকাশের মধ্য দিয়ে মানুষ স্মরণ করছে বীর সেনানীদের।

হলুয়াঘাট উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ৩রা নভেম্বর, মঙ্গলবার সকাল ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং যুদ্ধে নিহত বীর শহীদদের স্মরণে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হালুয়াঘাট- ধোবাউড়া থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য জুয়েল আরেং এমপি। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভির আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কবিরুল ইসলাম বেগ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবদুর রশিদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শাখাওয়াত হোসেন ফকির, হালুয়াঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাহমুদুল হাসান, ভুবনকুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম.সুরুজ মিয়াসহ যুদ্ধে নিহত শহীদ পরিবারের সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের ৩ নভেম্বর ভারতীয় সীমান্তবর্তী হালুয়াঘাটের তেলিখালী ক্যাম্প পাকিস্তানি সেনাদের কাছ থেকে দখলমুক্ত করতে ভারতীয় মিত্রবাহিনী ও মুক্তিযোদ্ধারা এক সম্মুখযুদ্ধে লিপ্ত হয়। পাঁচ ঘণ্টার রক্তক্ষয়ী এই যুদ্ধে ১২৪ জন পাকিস্তানি সেনা ও তাদের শতাধিক সহযোগী রাজাকার আলবদরসহ ২৩৪ জনকে নিহত করে মুক্তিযোদ্ধাদের যৌথবাহিনী। এতে শহীদ হন মিত্রবাহিনীর ২১ জন জওয়ান ও সাতজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।
তালিকাভুক্ত সাত শহীদ হচ্ছেন জামালপুরের সরিষাবাড়ির শওকত আলী, ময়মনসিংহের ফুলপুরের হযরত আলী, হালুয়াঘাটের আক্তার হোসেন, ময়মনসিংহ সদরের আলাউদ্দিন, শাহজাহান, শ্রী রঞ্জিত গুপ্ত এবং সিপাহী ওয়াজিউল্লাহ সহ নাম না জানা অনেকেই। তেলিখালী ক্যাম্পের পেছনে শনাক্ত করা হয়েছে সাত শহীদের গণসমাধি। নিহত শহীদদের স্মরণে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে নির্মাণ করা হয়েছে স্মৃতিফলক। ময়মনসিংহ সীমান্তে এটি প্রথম বিজয় ছিল। এরপর থেকেই ৩ নভেম্বর ‘ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাউল করিম বলেন, এবার করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে অনুষ্ঠানটি সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

হালুয়াঘাটে সাংসদ জুয়েল আরেংকে সংবর্ধনা
জুয়েল আরেং যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ায় হালুয়াঘাটে আনন্দ মিছিল
জুয়েল আরেং যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ায় হালুয়াঘাটে আনন্দ মিছিল
হালুয়াঘাটে গড়ে উঠছে অপার সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট
হালুয়াঘাটে বহুল প্রতীক্ষিত ভারতীয় কয়লা আমদানি শুরু
হালুয়াঘাট সাধারণ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

আরও খবর