ময়মনসিংহ, মঙ্গলবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ () ২৮°সে
শিরোনাম :
জাতিসংঘে এবারও বাংলায় বক্তৃতা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহ গফরগাঁও উপজেলা সাংবাদিক তৌহিদুল ইসলাম এর জানাযা সম্পন্ন বোররচরে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন জলিল শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গ্রামকে শহরে পরিণত করতে চেয়ারম্যান হতে চান ভালুকার উজ্জ্বল টেকনাফ উপজেলা বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ কমিটি ঘোষণা দূর্গাপুরের রামবাড়ী ঈদগাহ মাঠে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন দেওয়ানগঞ্জে চুকাইবাড়ী ইউনিয়নের নদীভাঙ্গন ১৮ পরিবার পেল ঢেউটিন শেরপুরের শ্রীবরদীতে তক্ষক উদ্ধার, ৫ প্রতারক আটক নালিতাবাড়ীতে দাফনের ৬৪ দিন পর লাশ উত্তলন পরিবারের হাল ধরতে থেমে থাকেনি “সালমার “জীবন যাত্রা

তাকমিল পরীক্ষা প্রস্তুতি: বুখারিতে ভালো ফলাফল পেতে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা

মাওলানাঃ মাসউদুর রহমান

নাকের ডগায়   তাকমিল পরীক্ষা। আর মাত্র ০৬ দিন বাকি। এখন আর পুরো কিতাব গেটে প্রস্তুতি নেয়ার সময় নেই। কেননা তাকমিল পরীক্ষার সিলেবাস অনেক লম্বা! কিন্তু কথা হলো সিলেবাস লম্বা হোক বা ছোটো। ভালো ফলাফলের জন্য মেহনতের কোনো বিকল্প নেই। আর মেহনতেরও রয়েছে সুনির্দিষ্ট কিছু নিয়ম। যে নিয়মে কিতাবের পাতা উল্টালে খুব অল্প সময়ে পরীক্ষায় অনেক ভালো ফলাফল অর্জন করা সম্ভব। নিয়মগুলো কী কী? কোন নিয়মে প্রস্তুতি নিলে কম সময়ে ভালো রেজাল্ট অর্জন করা যাবে?


পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য প্রথম শর্ত হলো সারাবছর ভালোভাবে মনোযোগের সাথে পড়তে হবে। এরপর হাতের লেখা সুন্দর করতে হবে। এখন যেহেতু পরীক্ষার সময় একেবারে কাছাকাছি চলে আসছে। তাই তাকমিলের বুখারি কিতাবের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য  নিম্মোক্ত বিষয়গুলো ফলো করা যেতে পারে। এখানে একটি কথা মনে রাখতে হবে। সেটা হলো হাদিসের বিষয়বস্তু সব এক।

নফসে হাদীস ও নফসে মাসআলা সব এক জায়গায়ই। তাই যে কোনো একটি হাদিসের কিতাব ভালো করে হল করলে অন্যান্য সকল হাদিসের কিতাব সহজ হয়ে যায়। তবে কিছু কিতাবে প্রাসঙ্গিক কিছু ভিন্ন বিষয় রয়েছে। কিতাবের হাইসিয়াতও ভিন্ন। যেমন হাদিসের কিতাবের মাঝে আবু দাউদের হাইসিয়াত ভিন্ন। বুখারি কিতাবের হাইসিয়াত আবার আরেকরকম। মোটকথা হাইসিয়াত ভিন্ন। কিন্তু হাদিসের আলোচনা প্রায় কাছাকাছি।

এবার আসা যাক বুখারি কিতাবের প্রস্তুতি নিবে কিভাবে? সে বিষয়ের আলোচনায়। বুখারি কিতাবের প্রস্তুতির জন্য কিতাবুল ঈমানকে ভালোভাবে আত্মস্থ করতে হবে। কিতাবুল ঈমানে ‘ঈমান সংক্রান্ত’ কিছু বিষয় আছে। সেগুলো ‘মালাহা ওয়ামা আলাইহা’ পড়তে হবে।

ঈমানের সংঙ্গা কী? ইসলামের সংঙ্গা কী? ঈমান-ইসলামের মাঝে নেসবত কী? ঈমানের মারিফাত কী? ঈমানের হাকিকত কী? ঈমানের মাজাহেব কী? ঈমান বসিত না মুরাক্কাব এ প্রসঙ্গে ফুকাহা এবং মুহাদ্দিসিনদের পরস্পরে ইখতিলাফ কী? প্রত্যেকের ইখতিলাফের দলীল কী? তাঁদের ইখতিলাফের বুনিয়াদ কী? এসব বিষয়ে খুব ভালো করে বুঝে পরীক্ষার হলে যেতে হবে। কারণ এসব বিষয় থেকে সবসময়ই কোনো না কোনো সুওয়াল থাকে।

বুখারির কিতাবুল ঈমান হলো একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। এটার জন্য ঈমান সংক্রান্ত বিষয়গুলো ভালোভাবে হল করতে হবে। পরীক্ষায় সাধারণত ঈমান ও ইসলামের সংঙ্গা থেকে প্রশ্ন করা হয়। ছাত্ররা এসবে ভুল করে থাকে। তাই এ বিষয়গুলো ভালোভাবে হল করতে হবে। সেটা উস্তাদ থেকে হোক বা সংশ্লিষ্ট শরাহ থেকে।

ঈমানের পরে যে বাবগুলো আছে সে বাবগুলো হল করতে হবে। বাবের মাঝে এক হাদিসের সাথে আরেক হাদিসের মুনাসাবাত কী? বাব দ্বারা ইমাম বুখারির মাকসাদ কী? ইমাম বুখারি বাবে যে হাদিস এনেছেন সে হাদিসের সাথে বাবের মুনাসাবাত কী ? এরপর ইমাম বুখারির উদ্দেশ্যের সঙ্গে আমাদের আহনাফের মতাদর্শের যদি ব্যতিক্রম হয় তাহলে তার সঠিক জবাব কী? এসব বিষয় উল্লেখ করতে হবে।

সুতরাং এক নম্বরে কাজ হলো হল্লে বাব বা বাবগুলো হল করা। আর বাব দ্বারা ইমাম বুখারির মাকসাদ কী? আর এ মাকসাদ দ্বারা তিনি কী ছাবেত করতে চাচ্ছেন সে বিষয়টাও ফুটিয়ে তুলতে হবে। আর বুখারি হলো একমহাসাগর। সারাবছর তাকরির শুনেও অনেক ছাত্র বুখারি ভালোভাবে বুজতে পারে না। তাহলে সে পরীক্ষায় কিভাবে ভালো রেজাল্ট করবে? পলীক্ষায় ভালো রেজাল্টের জন্য তাকে লক্ষ রাখতে হবে অতিতের প্রশ্নের দিকে।

 

কারণ সাধারণত দেখা যায় পরীক্ষায় পাঁচটি প্রশ্নের তিনটিই আসে প্রথম থেকে। সে অধ্যায়গুলো হলো  কিতাবুল ঈমান, কিতাবুল ইলম, কিতাবুত তাহারাত ও সালাত। এখন পরীক্ষার্থী ভালো ফলাফলের জন্য এ অধ্যায়গুলো ভালোভাবে হল করবে।

এরপর তৃতীয় ও চতুর্থ প্রশ্ন কোত্থেকে যে  আসে সেটা অনেক সময় খোঁজেও পাওয়া যায় না। আর বাকি রইলো মাসআলা। এর জন্য তিরমিজি থেকে তাহারাত ও সালাত ভালোভাবে হল করতে হবে। তাহলে আশা করা যায় একজন পরীক্ষার্থী বুখারি কিতাবে ভালো রেজাল্ট অর্জন করতে পারবে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

জাতিসংঘে এবারও বাংলায় বক্তৃতা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক বরাদ্দকৃত ৩টি হাই ফ্লো নেজাল ক্যানুলার হস্তান্তর করলেন ডিসি
ছবি ১৪ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধশীল দেশ গড়াই শেখ হাসিনা সরকারের অঙ্গীকার                                                                    ===রুহুল আমিন মাদানী এম.পি
সাংবাদিক ও সাংবাদিকতা কি ?
শীতে অবস্থা একটু খারাপের দিকে যেতে পারে: প্রধানমন্ত্রী
ত্রিশালে এমপির উদ্যোগে বয়স্ক কোরআন শিক্ষা কার্যক্রমের কমিটি গঠন

আরও খবর