ময়মনসিংহ ২৬.০৭°সে ১০ই আগস্ট, ২০২২

সাফল্যের মন্ত্র হলো “বাবা”


“বাবা”
মাত্র দুটি বর্ণের মিলিত একটি শব্দ,তবে তার পরিচয় হাজার সংগ্রাম দিয়ে ।এই শব্দের তীব্রতা কতটুকু তা জানে বাবার সন্তানেরা,
সন্তানের জন্মের পূর্বে থেকে ই বাবা ভালবাসতে শুরু করে তার প্রত্যেক সন্তানকে ।
সুখের নিবিড়ে চাদরে বাবা আগলে রাখে হাজারো কঠিন পরিস্থিতিতে,
সন্তানকে বুঝতে দেয় না বাবা তার সংগ্রামী জীবন ।সন্তানের কঠিন সময়ে সন্তান কে চিন্তার ভাঁজ ও পড়তে দেয় না বাবা ।সন্তান কে ছোট কাল থেকে ই মানুষ গড়ার লক্ষ্যে বাবা অবিরত পরিশ্রম করে,
রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যায় পরিপূর্ণ করতে সন্তানের সকল আবদার ।বাবা ছোট থেকে সন্তানকে শাসন করে,বন্ধু নির্বাচন করাতেও বাবা পরামর্শ দেয়,বাবা উপদেশ দিয়ে বোঝায় সঠিক বন্ধু নির্বাচন করতে,বাবার শাসন ছোট কালে অনেক সময় স্বাধীনতা হরণ মনে হয়,কিন্তু সেই সন্তান ই যখন বড় হয় ,পৃথিবীকে জানতে শুরু করে,
বাহিরের পৃথিবীতে বিচরণ করার সাথে সাথে সন্তান বুঝে যায় বাবা কি জিনিস ।
বাবার কথাগুলো তখন প্রতিনিয়ত মনে পড়ে আর বোধগম্য হয় বাবার সেই তখনের শাসন গুলো ।
বাবার প্রতিটা উপদেশ তখন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মনিষীর উপদেশ কে ও ছাড়িয়ে যায় ।
একজন সন্তান বাবা কে আরো চিনতে পারে যখন সে নিজে বিপদে পড়ে । সন্তান বিপদে পড়লে বাবা হাজার বিপদ উপেক্ষা করে সন্তান কে উদ্ধার করে । তখন বাবা ভুলে যায় পৃথিবীর সকল সুখ আর মায়া,তখন সন্তান কে বিপদমুক্ত করা ই বাবার একমাত্র উদ্দেশ্য হয়ে যায় ।সন্তান বাবার কাছে হাজার অন্যায় করার পর ও বাবার মুখে কখনো শুনা যায় না আমার সন্তান অপরাধী,বাবা কখনো বলে না তুমি অপরাধ করেছো,সন্তান কে বিপদমুক্ত করতে বাবা নিজের সহায় সম্বল এমনকি নিজের জীবনকে ও দিয়ে দিতে দ্বিধা করে না ।
বাবা আমি চিনেছি আপনাকে,
আপনার বাহির টা কঠিন আবরণ দিয়ে গড়া কিন্তু সৃষ্টিকর্তা আপনার ভিতর টা সৃষ্টির সবচেয়ে কোমল জিনিস দিয়ে বানিয়েছেন ।
“বাবা” আমি বারবার পৃথিবীর ভিন্ন জায়গা থেকে বিতাড়িত হয়েছি,
কিন্তু কোন দিন আপনার থেকে বিতাড়িত হয়নি ।আপনি যে এত ত্যাগ দিতে পারেন, আল্লাহ যে আপনাকে এত ধৈর্য দিয়েছে, আপনার বুকে যে সন্তানের জন্য কি পরিমান ভালবাসা সেটা বুঝতে বাকি নেই আমি ।বাবা আপনি আমার সকল ভরসার জায়গা ।
যতদিন পৃথিবীতে বেঁচে থাকবো আপনার ছত্রছায়ায় বেঁচে থাকতে চাই।
আজকে যাদের বাবা দুনিয়ার জমিনে বেঁছে নেই তাদের কে আল্লাহ তায়ালা জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুক!আর যাদের বাবা দুনিয়াতে আছে, তাদেরকে নেক হায়াৎ দিয়ে বাঁচিয়ে রাখুক সুস্থতার সাথে ।

📝কলমে
মো তাইজুল ইসলাম জুয়েল
ইসলাম শিক্ষা
আনন্দমোহন সরকারী কলেজ

আপনার মতামত লিখুন :

 
   
২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত , দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম