ময়মনসিংহ ২৮.৩২°সে ১লা ডিসেম্বর, ২০২১

হালুয়াঘাটে পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে পারলে সমৃদ্ধ হবে অর্থনীতি


বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী উপজেলা হালুয়াঘাট পর্যটন শিল্পের এক অপার সম্ভাবনাময় জায়গা। ভারতের মেঘালয় রাজ্যের গারো পাহাড়ের পাদদেশে ক্রমবর্ধনশীল পর্যটন শিল্পের এই হালুয়াঘাট যেন প্রাকৃতিক নৈস্বর্গের লীলাভূমি।

হালুয়াঘাটের পাহাড়ি স্পটগুলো ভ্রমণ পিপাসুদের পদচারণায় প্রায় সারা বছর মুখর থাকলেও শীতকালে পর্যটকদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। বিশেষ করে শুক্রবার হলেই সকাল থেকে প্রায় সন্ধ্যা পর্যন্ত আনন্দে মাতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ভ্রমণ পিপাসুরা।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি গারো পাহাড়ের কড়াইতলী, গোবরাকুড়া কয়লা ডিপো, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমি রাংরাপাড়া এবং নতুন পর্যটন স্পষ্ট গাবরাখালী ও ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে উঠা ইউরোপিয়ান পার্কে ভ্রমণ পিপাসুরা বন্ধু-বান্ধব এমন কি পরিবার পরিজন নিয়ে বেড়াতে আসেন। সরেজমিনে দেখা যায়, পিকনিক স্পটের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণ পিপাসু মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কেউ সেলফি তুলছেন। কেউবা প্রিয়জনের ছবি মুঠোফোনে ক্যামেরাবন্দী করছেন। শিশুদের পদচারণাও চোখে পড়ার মতো।

সাম্প্রতিক সময়ে হালুয়াঘাট উপজেলা পৌর শহর থেকে প্রায় ১২ কিলোমিটার দূরে মেঘালয় রাজ্যের সীমান্ত ঘেঁষা গারো পাহাড় ঘেরা গাজিরভিটা ইউনিয়নের গাবরাখালী গ্রামে সরকারি উদ্যোগে গড়ে তোলা হয়েছে “গাবরাখালী গারো পাহাড় পর্যটন কেন্দ্র”। অপার সম্ভাবনাময় এ পর্যটন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করতে ইতোমধ্যে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন পরিকল্পনা। এতে বিভিন্ন রাইডসসহ আধুনিকায়ন, রিসোর্ট নির্মাণ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার, অবকাঠামো উন্নয়ন, প্রচার-প্রচারণা বৃদ্ধি; সর্বোপরি করোনাত্তর শীতকালীন ছুটিতে পর্যটকদের আকৃষ্ট করার মতো পরিবেশ তৈরি এবং পর্যাপ্ত বিনোদন ব্যবস্থা করতে পারলে আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে এক অনন্য অবদান রাখবে এ সেক্টরটি। সেই সাথে সমৃদ্ধ হবে এ অঞ্চলের অর্থনীতি এমনটি মনে করছেন হালুয়াঘাটের সুশীল সমাজ।

আপনার মতামত লিখুন :

 
   
২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত , দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম
close