ময়মনসিংহ ২৮.৭৪°সে ১লা ডিসেম্বর, ২০২১

হালুয়াঘাটে ভারতীয় বন্য হাতি পায়ের নিচে ধ্বংস কৃষকের স্বপ্ন


ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে আবারও ভারতীয় বন্য হাতির দল নোম্যান্সল্যান্ড অতিক্রম করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে একের পর এক তান্ডব চালিয়ে যাচ্ছে। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে সীমান্তবর্তী লোকজন।

গত রবিবার ভোরে আবারও হালুয়াঘাটের সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন ভূবনকুড়ার রঙ্গমপাড়া গ্রামে বন্য হাতির দল জনৈক কৃষকের লাউ ক্ষেতে প্রবেশ করে সব লাউ খেয়ে ফেলে এবং গাছগুলো দুমড়ে-মুচড়ে এবং পায়ের নিচে পিষে ফেলে। এর আগে এই কষকের প্রায় এক একর জমির ধান খেয়ে সাবার করে বন্য হাতি।

প্রায় প্রতি বছর-ই ভারতীয় বন্য হাতির দল উপজেলার ভূবনকুড়া ইউনিয়নের মহিষলেটি, ধোপাঝুড়ি ও বানাই চিরিঙ্গীপাড়া ও রঙ্গমপাড়াসহ আশপাশের গ্রামগুলোতে তান্ডব চালিয়ে জান ও মালের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে আসছে। এতে সীমান্তবর্তী মানুষ আতঙ্কে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে।

স্থানীয়রা জানায়, ভারতীয় বন্য হাতির তান্ডবে প্রতিবছর বোর ও আমনের আবাদী ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়। বাড়ি-ঘর ভেঙ্গে ফেলে এবং গাছের কাঁঠাল খেয়ে সাবার করে। বন্য হাতীর দল দিনের বেলায় জঙ্গলের ঝোপ-ঝাড়ে অবস্থান করলেও সন্ধ্যায় নেমে আসে সমতলে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী সরকারি সহযোগিতা কামনা করেন।

হাতির আক্রমণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন সদ্য নির্বাচিত ভূবনকুড়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম সুরুজ মিঞাসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রেজাউল করিম এ প্রতিবেদককে বলেন, ভারতীয় বন্য হাতির দল বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করার বিষয়টি উপজেলা ও জেলা প্রশাসন অবগত আছেন। তাছাড়া হাতি তাড়াতে লাইট ও জ্বালানীর টাকা দেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া উপজেলা কৃষি অফিস এ বিষয়ে খোঁজ-খবর ও প্রয়োজনীয় সহযোগিতার জন্য সংশ্লিষ্ট এলাকায় কাজ করছেন।

প্রতি বছর ভারতীয় বন্য হাতির দল বাংলাদেশে ঢুকে ফসল ও ঘরবাড়ির ক্ষতি সাধন করে থাকে। এ অবস্থায় সীমান্তবর্তী কৃষকদের ফসল ও জান-মালের নিরাপত্তায় এবং হাতি আসা বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নেবে দু’দেশের সরকার এমনটাই প্রত্যাশা সীমান্তবর্তী এলাকার মানুষের।

আপনার মতামত লিখুন :

 
   
২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত , দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম
close