ময়মনসিংহ, রবিবার, ২০শে জুন, ২০২১ | ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
তারাকান্দায় ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল ও ঘরের চাবি হস্তান্তর হালুয়াঘাটে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে ৪০ গৃহহীন পরিবারের স্বপ্ন পূরণ নান্দাইলে ব্যবসায়ী জাহিদ হত্যাকান্ডে জড়িত ঘাতকরা গ্রেপ্তার মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রী অঙ্গীকার একটি মানুষও ভূমিহীন ও গৃহহীন থাকবে না-জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল তারাকান্দায় ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল ঘরের চাবি হস্তান্তর হালুয়াঘাটে ফুটব্রীজের শুভ উদ্বোধন করলেন সাংসদ জুয়েল আরেং মুক্তাগাছায় পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ৫ হালুয়াঘাটে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর প্রদানের লক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং হালুয়াঘাটে আশার আলো’র নির্বাচনে কাঞ্চন চেয়ারম্যান, আলী হোসেন সেক্রেটারী ময়মনসিংহে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরন করলেন চেয়ারম্যান আশরাফ

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহ জেলার সম্মানিত জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হক। যিনি গত ৭ই মার্চ তারিখে ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক হিসাবে যোগদানের পর থেকেই ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনকে স্বচ্ছ ও দুর্ণীতি মুক্ত জনপ্রশাসন হিসাবে গড়তে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। কর্মই যেন তাঁর একমাত্র সাধনা, ধ্যান ও জ্ঞান। কর্ম পাগল এই মানুষটি সকাল থেকে গভীর রাত অবধি সমাজের নানা প্রতিকূলতার সমাধানে সর্বোচ্চ চেষ্টা করার পাশাপাশি তাঁর উপর অর্পিত সকল সরকারি দায়িত্ব সুচারুরূপে পালন করার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে চলছেন। কোন বিশেষ প্রয়োজনে সে রাত বা দিন যখনই হোক তাঁর সাথে দেখা করতে চেয়ে সুযোগ পাওয়া যায়নি এমন ঘটনা বিরল। সাক্ষাৎ প্রত্যাশী মানুষের কুশলাদি জিজ্ঞাসা করে তাদের সমস্যা বা দুর্ভোগের কার্যকর সমাধানে যথাসাধ্য চেষ্টা করা, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থী, অসহায় ও পিছিয়ে পড়া মানুষদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া, চিকিৎসাবঞ্চিত মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা বিশেষত করোনা কালীন সময়ে স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রয়োজনীয় সকল ধরনের সহযোগিতা প্রদান সহ জেলা প্রশাসনের পুরো টিমকে নিয়ে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে কাজ করা, মৃত মানুষের সৎকারের ব্যবস্থা করা, বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনার সময় যখন সারা দেশে লকডাউন অবস্থা সৃষ্টি হয় এবং সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয় সে সময় দিনরাত পালাক্রমে দুস্থ ও অসহায় মানুষের পাশে ঘরে ঘরে তিনি ও তার টিম সরকারি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে সংগৃহীত বিভিন্ন ধরনের মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন। সরকারি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় দ্রুত পৌঁছে দেওয়ার জন্য ডিজিটাইজেশনে যোগদানের পর থেকে গত দুই মাসে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছেন।
ভূমি অধিগ্রহণের টাকা যাতে মানুষ বিনা ভোগান্তিতে দ্রুততার সাথে পেতে পারেন সে সেজন্য বর্তমান ম্যানুয়াল পদ্ধতির পরিবর্তে ডিজিটাল পদ্ধতিতে এই অর্থ প্রদানের ব্যবস্থা প্রবর্তন করেছেন। চান্দিনা ভিটি ও অর্পিত সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা সহ বিভিন্ন ডিলিং লাইসেন্স নবায়নেও যাতে মানুষের কোনরূপ ভোগান্তিতে পড়তে না হয় সেজন্য ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি অ্যাপস তৈরি সহ সার্বিক কর্মকাণ্ড অনলাইনের মাধ্যমে সেবা প্রদানের ব্যবস্থা করেছেন। রেকর্ড রুম থেকে পর্চা সরবরাহ সহ নামজারির সকল কার্যক্রম অনলাইনের মাধ্যমে সম্পাদিত হচ্ছে। বর্তমানে মানুষ ঘরে বসেই তার কাঙ্ক্ষিত সেবা পেয়ে যাচ্ছেন। প্রচন্ড জনবল সংকট থাকা সত্বেও সেবা প্রত্যাশী জনগণ কে সেবা দেওয়ার জন্য ভূমি (রাজস্ব) প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারীরা জেলা প্রশাসকের নির্দেশে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। সরকারের সকল এজেন্ডা বাস্তবায়নের পাশাপাশি সমাজের আপামর মানুষের সার্বিক কল্যাণে নিরন্তর ব্যস্ত থাকেন এই জেলা প্রশাসক ও তার টিম যা টিম ময়মনসিংহ নামে ইতিমধ্যে সারা জেলায় ব্যাপক পরিচিত লাভ করেছেন। মাত্র ২মাস হয়েছে তিনি এই জেলায় এসেছেন। তার আগমনের পর পরই সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সাথে মতবিনিময়কালে দেখা গেছে নির্ভীক, নিরহংকার ও সদালাপী এই মানুষটির মনে রয়েছে নানান স্বপ্ন ও উদ্ভাবনী ভাবনা যা তিনি ময়মনসিংহে বাস্তবায়ন করার জন্য বদ্ধপরিকর। শিল্প-সাহিত্য এবং শিক্ষা ও সুকুমারবৃত্তির চর্চায় ময়মনসিংহ কে দেশের একটি অন্যতম শীর্ষস্থানীয় জেলায় পরিণত করতে চান তিনি। জনপ্রতিনিধি ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ ও স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনা প্রতিরোধে ব্যাপক প্রচারণা ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ, নদী ভাঙ্গন রোধে বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন প্রকল্পের সুষ্ঠু বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট বিভাগকে সাথে নিয়ে সরকারের কাছে আরো বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণণ প্রস্তাব উপস্থাপন করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রবর্তিত ভিশন ২০২১, ভিশন ২০৪১, র্নির্বাচনী ইশতেহার ২০১৮ এবং করোনা প্রতিরোধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ দফা নির্দেশনা সহ সরকারের সকল নির্দেশনা ও নীতির আলোকে গৃহীত ও বাস্তবায়নাধীন নানামুখী পদক্ষেপের কারণে সমগ্র ময়মনসিংহ জুড়ে ইতোমধ্যে তৈরি হয়েছে এক নতুন উদ্দীপনা। সকলের মনে সঞ্চারিত হয়েছে নতুন দিনের নতুন আলো তথা উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশের দৃশ্যমান স্বপ্ন। শিক্ষার প্রতি সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে তিনি নতুন একটি স্লোগান তৈরি করেছেন আর তা হল হলো ‘আমার গ্রাম আমার শহর ময়মনসিংহ হবে শিক্ষানগর।’

মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সকল ভূমিহীন ও গৃহহীনের জন্য ভূমি ও গৃহের সংস্থান, প্রতিটি ইউনিয়নে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু পাঠাগার গড়ে তোলা, উপজেলা পরিষদে মুজিববর্ষ পার্ক তৈরি করার পরিকল্পনাসহ মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্যে ময়মনসিংহ জেলার সকল বিভাগের সমন্বয়ে ১০০+ উদ্যোগ ( 100+ Initiatives) গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিবিজড়িত ময়মনসিংহ জেলায় বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সমূহকে বিশেষভাবে চিহ্নিত করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সংরক্ষণ করার বিশেষ উদ্যোগও গ্রহণ করা হয়েছে‌। কিছু মানুষ নিজেদের কর্মগুনে জনমনে স্থান করে নিয়েছেন। তেমনি একজন ডিসি এনামুল হক। ময়মনসিংহ বাসী তাকে ব্যাপক শ্রদ্ধা করে। তিনি খুব কম সময় ধরে ময়মনসিংহে আসলেও ময়মনসিংহের মানুষের জন্য অনেক পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমান জেলাপ্রশাসক এনামুল হক ময়মনসিংহে আসার এখনও ৩ মাস পার হয়নি। অথচ তাঁর মানবিক মূল্যবোধ এবং কর্মদক্ষতায় ময়মনসিংহ বাসী মুগ্ধ। তাঁর নতুন নতুন চিন্তা ও স্মার্ট আইডিয়া ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসনকে এক নতুন মাত্রায় নিয়ে যাচ্ছে। তিনি আইন এবং নিয়মনীতি মেনে চলতে ভালোবাসেন। কোনো অন্যায়ের সাথে তাঁর আপোস নেই। বিশেষ করে পবিত্র রমজানে ভেজাল বিরোধী অভিযান এবং বাজার মনিটরিং কাজে তিনি বিশেষ দক্ষতা দেখিয়েছেন। যার ফলে ময়মনসিংহ দ্রব্যমূল্য ছিলো সহনীয় পর্যায়ে। ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সরকারের এই নিরলস কর্মযজ্ঞ বাস্তবায়নে ডিসি এনামুল হক এর নেতৃত্বে মাঠ পর্যায় থেকে মূল অনুঘটকের কাজ করে আসছে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন। সেই ধারাবাহিকতায় তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় জনগণকে সহজতর ও সুন্দরতরভাবে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে এবং বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপরেখা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তিনি নিরবে তাঁর কর্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন, অনেক সময় দেখা যায় তিনি জোম মিটিংয়ে যুক্ত হয়েও মানুষের ভোগান্তি না হওয়ার জন্য বিভিন্ন ফাইলে স্বাক্ষর করে যাচ্ছেন,তিনি ধনী-গরীব সকলকে মুল্যায়ন সমভাবে করেন, ভিক্ষুক বা দরিদ্রদেরকে অবহেলা করেন না,ধৈর্যের সাথে যে কোন কর্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন বা প্রশাসন চালিয়ে তিনি ইতিমধ্যে সকল মহলে প্রসংশীত হয়ে উঠেছেন। এছাড়া ময়মনসিংহ জেলার ১৩টি উপজেলা ও ১৪৬ টি ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনীয় তথ্যাদিও সন্নিবেশিত আছে তার ওয়েবপোর্টালে । এই ওয়েবসাইটে সুনির্দিষ্ট নাগরিক সেবা ও জেলার উন্নয়ন কার্যক্রমের তথ্যের পাশাপাশি তুলে ধরা হয়েছে জেলার ইতিহাস ও ঐতিহ্য এবং পর্যটন সম্পর্কিত বিষয়সমূহ। এর মাধ্যমে শিক্ষক-ছাত্র-গবেষক -পর্যটক অথবা যে কোন অনুসন্ধিৎসু ব্যক্তি ময়মনসিংহ সম্পর্কে সহজেই অনেক জিজ্ঞাসার জবাব পাবেন এই বাতায়ন থেকে। এই ওয়েবসাইট সম্পর্কে যে কোন পরামর্শ গৃহণ করে থাকেন তিনি । এছাড়াও এর মাধ্যমে সেবা গ্রহীতাগণ জেলা প্রশাসনের কোন সেবা হতে বঞ্চিত হলেও অভিযোগ জানাতে পারেন ই-মেইলের মাধ্যমে বা জেলা প্রশাসকের মোবাইল নম্বরে। যে কোন সমস্যার কথা সরাসরি জানাতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রতি বুধবারে অনুষ্ঠিত গণশুনানীও নিয়মিত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসক । তিনি জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে শ্রম দিচ্ছেন দিন-রাত । স্বচ্ছ ও দুর্ণীতি মুক্ত জনপ্রশাসন কে জনকল্যাণে জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে সকলের সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

Loading...
হালুয়াঘাটে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে ৪০ গৃহহীন পরিবারের স্বপ্ন পূরণ
Loading...
নান্দাইলে ব্যবসায়ী জাহিদ হত্যাকান্ডে জড়িত ঘাতকরা গ্রেপ্তার
Loading...
মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রী অঙ্গীকার একটি মানুষও ভূমিহীন ও গৃহহীন থাকবে না-জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল
Loading...
তারাকান্দায় ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমির দলিল ঘরের চাবি হস্তান্তর
Loading...
হালুয়াঘাটে ফুটব্রীজের শুভ উদ্বোধন করলেন সাংসদ জুয়েল আরেং
Loading...
মুক্তাগাছায় পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ৫